1. abutalha6256@gmail.com : abdul kadir : abdul kadir
  2. abutalha625616@gmail.com : abu talha : abu talha
  3. asadkanaighat@gmail.com : Asad Ahmed : Asad Ahmed
  4. izharehaq24@gmail.com : mzakir :
বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ০৪:৪৭ পূর্বাহ্ন

কানাইঘাটে শাহ আতাউল্লাহ মাজারে গাছপালা বিক্রির অভিযোগ:

রিপোর্টার নাম:
  • প্রকাশটাইম: বুধবার, ৩ মার্চ, ২০২১

কানাইঘাট সাতবাঁক ইউনিয়নরে জুলাই পশ্চিম পীরনগর গ্রামের সরকারী ৬ একর জায়গায় অবস্থিত শাহ আতাউল্লা (র.) এর মাজার ও কবরস্থানে অবস্থিত লক্ষ লক্ষ টাকার বড় বড় গাছ-পালা বিক্রির অভিযোগ উঠেছে ভূয়া মাজার কমিটির নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে। এ নিয়ে এলাকাবাসী সম্প্রতি সিলেটের জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে মাজারের গাছপালা বিক্রির সাথে জড়িত ও ভূয়া মাজার কমিটির নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য গণস্বাক্ষর সম্বলিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। জানা যায়, এলাকাবাসীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে দর্পনগর তহসীল অফিসের তসিলদার শাহাব উদ্দিন কয়েক দিন পুর্বে সরজমিনে শাহ আতাউল্লা (র.) মাজার ও কবরস্থানের ৬ একর জায়গা পরিদর্শন করেন।




কবরস্থানরে জায়গা থেকে স্বঘোষিত মাজার কমিটির কতেক সদস্যদের যোগসাজসে ১০/১২লক্ষ টাকা মূল্যের অনেক বড় বড় গাছপালা কেটে নেওয়ার অভিযোগের সত্যতা পান তিনি। গাছ বিক্রি দামা-চাপা দেয়ার জন্য ঘটনার সাথে জড়িতরা গাছের গোড়া পর্যন্ত উঠিয়ে নিয়ে গেছে যাহা সরজমিনে গত সোমবার মাজার ও কবরস্থানে গিয়ে দেখা যায়। এ সময় অভিযোগের বাদী পীরনগর গ্রামের আনিসুল হক ও অভিযোগকারীরা জানান শাহ আতাউল্লা (র.) মাজার ও কবরস্থান এলাকার একটি প্রাচীনতম পবিত্রতম স্থান। পীরে কামিল আতাউল্লা মারা যাবার পর তার নামে সরকারি ভাবে মাজার ও কবরস্থানের জন্য ৬ একর জায়গা বরাদ্দ দেয়া হয়। এ কবরস্থানে লক্ষ লক্ষ টাকা মূল্যের দামী গাছপালা এখনো রয়েছে।




অভিযোগের দরখাস্তকারী পীরনগর গ্রামের মৃত মনতাজ আলীর পুত্র আনিসুল হক জানান, মাজার কমিটির নামে অবৈধ ভাবে জুলাই পীরনগর গ্রামের মৃত আরজান আলী ছেলে ময়ুর আহমদ ও একই গ্রামের ফরিদ আহমদ, নিজাম উদ্দিন, আহমদ আলী ও সাতপারী গ্রামের কুটি মিয়ার পুত্র এবাদ সহ কয়েকজন মিলে মাজার ও কবরস্থানের লক্ষ লক্ষ টাকার গাছ বিক্রি করে সমুহ টাকা আত্মসাত করেছেন। এমনকি তারা কবরস্থানের জায়গা থেকে মাটি বিক্রি করেছেন ও মাজার ও কবরস্থানে কোন ধরনের হেফাজত না করে বছরের পর বছর ধরে শাহ আতা উল্লাহ (র.) এর নামে অবৈধ ভাবে মাজার কমিটি করে উল্লেখিত ব্যক্তিরা কবরস্থানের ৬ একর জায়গায় অবস্থিত বড় বড় বিভিন্ন প্রজাতির গাছপালা বিক্রি করে অদ্যবধি পর্যন্ত ৫০/৬০ লক্ষ টাকা আত্মসাত করেছে বলে আনিছুল হক জানান। অভিযোগ দায়েরের পর থেকে বিবাদীরা দরখাস্তকারীদের নানা ভাবে ভয় ভীতি প্রদর্শন এমন কি অভিযোগ দামাচাপা দেয়ার জন্য নানা ধরনের তৎপরতা চালাচ্ছে বলে এলাকার অনেকে বলেছেন।




এব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন সহ সরকারি কবরস্থানের জায়গা থেকে গাছ বিক্রির ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন এবং মাজার ও কবরস্থানরে হেফাজতের জন্য সরকারি ভাবে কমিটি গঠনে দ্রুত স্থানীয় প্রশাসনকে এগিয়ে আসার আহব্বান জানিয়েছেন এলাকাবাসী ।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
copyright 2020:
Theme Customized BY MD MARUF ZAKIR