1. abutalharayhan@gmail.com : Abu Talha Rayhan : Abu Talha Rayhan
  2. asadkanaighat@gmail.com : Asad kg : Asad kg
  3. junayedshamsi30@gmail.com : Mohammad Junayed Shamsi : Mohammad Junayed Shamsi
  4. sufianhamidi40@gmail.com : Sufian Hamidi : Sufian Hamidi
  5. izharehaque0@gmail.com : ইজহারে হক ডেস্ক: :
  6. rashidahmed25385@gmail.com : Rashid Ahmad : Rashid Ahmad
  7. sharifuddin000000@gmail.com : Sharif Uddin : Sharif Uddin
  8. Yeahyeasohid286026@gmail.com : Yeahyea Sohid : Yeahyea Sohid
বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:২৯ অপরাহ্ন

ফেরা || আব্দুল্লাহ আল মামুন

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২০ আগস্ট, ২০২০

 

ফেরা || আব্দুল্লাহ আল মামুন

মেয়েটির নাম নাওমী নাফিসা সুমাইয়া।  দাঁড়িয়ে আছে বেলকনির রেলিং ধরে। অপলক দৃষ্টিতে দেখছে সে আকাশের নীলিমা। দেখছে আকাশের বিশালতা। ভেসে বেড়ানো বিভিন্ন আকৃতির সাদা-কালো মেঘের ভেলা। এসবে নিজেকে ডুবিয়ে রেখে আল্লাহর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছে। তাঁর কুদরতী ক্ষমতা অনুভব করার চেষ্টা করছে। তবুও মস্তিষ্ক তড়িৎ প্রবাহে পিছনে ফিরে যাচ্ছে বারেবার। সে ভাবছে তার অতীত-বর্তমান নিয়ে। কেমন ছিল, কেমন আছে আর কি জানি কেমন থাকবে।



আল্লাহ তা‘আলা তাকে অনুগ্রহ করেছেন। পাপের “অন্ধকূপ” থেকে টেনে তুলেছেন। দেখিয়েছেন সরল-সোজা দ্বীনের পথ। অথচ এক সময় তার জীবন ছিল পুরোটাই বিভিন্ন পাপ-পঙ্কিলতায় ভরা। দীর্ঘদিন যাবত জড়িত ছিল হারাম রিলেশনশিপে। ফেইসবুকে নিজের পিক আপলোড করা ছিল তার দৈনন্দিন রুটিন। পারফিউম ব্যবহার করা ছাড়া সে কখনো বাহিরে বের হত না। পর্দা করা তো দূরের কথা! যেসব বান্ধবীরা হিজাব পরিধান করত, তাদেরকে বিভিন্ন কটু কথা বলত। যারা দ্বীন মেনে চলত তাদেরকে আনস্মার্ট বলত।

প্রায় বছর দু’য়েক হবে। নিয়ম করে এবারও  গ্রামের বাড়িতে সপরিবারে ঈদ পালন করবে তারা। তাই সকলেই আপ্লুত হৃদয়ে ধরেছিল বাড়ির পথ। অন্যরকম এক ভাল লাগা কাজ করছিল তাদের মাঝে। কিন্তু কে জানে, এ ভাল লাগা আর স্থায়ী হবে না তাদের জন্য!  চলন্ত পথে গাড়ির ধাক্কায় রাস্তায় ঝরে গেল ড্রাইভার সহ আরো দুটি প্রাণ। আল্লাহর রহমতে সুমাইয়া এবং তার পরিবারের কারো তেমন কোনো সমস্যা হয়নি। বেঁচে গেল অল্পতেই।





এই ঘটনা তার হৃদয়ে খুব বাজেভাবে দাগ কেটেছিল। যখন তখন আনমনা হয়ে ভাবতে থাকত। চোখ বুজলেই ভেসে উঠত পুরো দৃশ্য চোখের তারায়। যেন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে ছিল সে। তাই কালবিলম্ব না করে তওবা করে ফিরে এসেছিল দ্বীনের পথে। ত্যাগ করেছিল সমস্ত পাপের কাজ।



আজ বেলকনিতে দাঁড়িয়ে সেই মর্মান্তিক মুহূর্তের কথা  ভাবতে ভাবতে তার চোখের অশ্রুফোটায় বেলকনির গ্রিল যেন শ্রাবণের বারিধারায় ভিজছে। আর মনের গভীর থেকে বের হয়ে আসছে: আলহামদুলিল্লাহ।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2020 Izharehaq.com
Theme Customized BY Md Maruf Zakir