1. abutalharayhan@gmail.com : Abu Talha Rayhan : Abu Talha Rayhan
  2. asadkanaighat@gmail.com : Asad kg : Asad kg
  3. junayedshamsi30@gmail.com : Mohammad Junayed Shamsi : Mohammad Junayed Shamsi
  4. sufianhamidi40@gmail.com : Sufian Hamidi : Sufian Hamidi
  5. izharehaque0@gmail.com : ইজহারে হক ডেস্ক: :
  6. rashidahmed25385@gmail.com : Rashid Ahmad : Rashid Ahmad
  7. sharifuddin000000@gmail.com : Sharif Uddin : Sharif Uddin
  8. Yeahyeasohid286026@gmail.com : Yeahyea Sohid : Yeahyea Sohid
  9. zahidnahid68@gmail.com : Hafiz Zahid : Hafiz Zahid
সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০৮:০৬ পূর্বাহ্ন

কবর থেকে নির্গত হচ্ছে সুগন্ধি: মাজার ঘিরে আগত ভক্তদের ভিড়

আবু তালহা রায়হান
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০

 

মৃত্যুর পর মহান আল্লাহ তাঁর খাস বান্দাদের কবরে বিভিন্নরকম অলৌকিক ঘটনা ঘটিয়ে আমাদেরকে পুনরায় শিক্ষা প্রদান করেন।যেন আমরাও তাঁর সেই প্রিয় বান্দাদের মতো মুমিন,মুত্তাকি হয়েই কবর পথে পাড়ি জমাই।গত কাল সিলেটের কানাইঘাটে দেখা মিলেছে ঠিক তেমনই একটি অলৌকিক ঘটনার।
উপমহাদেশের কিংবদন্তী মহাপুরুষ,শায়খুল ইসলাম আল্লামা হুসাইন আহমদ মাদানি রাহি.এর অন্যতম খলিফা,অখণ্ড পাকিস্তানের মেম্বার অব পার্রলামেন্টারি,শায়খুল ইসলাম আল্লামা মুশাহিদ বায়মপুরির মাজারে থেকে ফের নির্গত হচ্ছে  সুগন্ধি।গত কাল বুধবার সন্ধ্যার পর থেকেই এমনটা ঘটতে দেখা গেছে।সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়ে এ খবর।অলৌকিক সুবাস নিতে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে এসে শায়খের মাজার ঘিরে জমায়েত করছে তাঁর ভক্ত-মুরিদান।ঘটনাস্থলে নিয়ন্ত্রণ বজায় রাখতে কাজ করছে পুলিশ শৃঙ্খলা বাহিনী।খবর পেয়ে সেখানে উপস্থিত হন জামিয়া দারুল উলূম কানাইঘাটের মহাপরিচালক ; আল্লামা মুহাম্মাদ বিন ইদ্রীস লক্ষিপুরি,শায়খুল হাদিস; আল্লামা আলিমুদ্দীন দুর্লভপুরি,নাইবে শায়খুল হাদিস; মাওলানা শামসুদ্দীন দুর্লভপুরি।তাঁরা সেখানে দীর্ঘক্ষণ অবস্থান করেন এবং রাত সাড়ে দশটার দিকে শায়খ লক্ষিপুরি শতশত ভক্ত-মুরিদানকে নিয়ে তাঁদের প্রিয় শায়খের মাজারে মুনাজাত করেন।মুনাজাতে তিনি বলেন,’হে আল্লাহ আমাদের প্রিয় শায়খকে আপনি জান্নাতুল ফিরদাউস নসীব করেন।আপনার প্রিয় বান্দা বায়মপুরির খাতিরে আমাদেরকেও ক্ষমা করে দিন।তাঁর করবে থেকে নির্গত সুগন্ধি যেন আমাদের সবার জীবনে ছড়িয়ে পড়ে।এই সুগন্ধি নিয়ে কেউ যেন নববেদাআ’তা সৃষ্টি না করে।’
তবে বায়মপুরির কবরে এটা নতুন কোনো ঘটনা নয়, এর আগেও বেশ কয়েকবার তাঁর কবরে এমনটা ঘটেছে।কানাইঘাট মাদ্রাসা থেকে মাওলানা আসাদ কানাইঘাটি ইজহারে হককে জানান,ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া এই সুগন্ধির খবর পেয়ে আজ বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে হযরতের কবর যিয়ারত করতে মানুষ আসছে।এখন পর্যন্ত সেখানে জনসমাগম বেড়েই চলছে।

উল্লেখ্য,
আল্লামা মুশাহিদ বায়মপুরি রাহি. ১৯০৭ খ্রিস্টাব্দ মোতাবেক ১৩২৭ হিজরি সনে সিলেট জেলার কানাইঘাট উপজেলার বায়মপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।
তিনি দীর্ঘ প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা শেষে উচ্চশিক্ষার অন্বেষায় ২৯ বছর বয়সে ১৯৩৬ খ্রিস্টব্দ মোতাবেক ১৩৫৬ হিজরি সনে বিশ্বখ্যাত ইসলামী বিদ্যাপীঠ দারুল উলূম দেওবন্দে গিয়ে হাদীস বিভাগে ভর্তি হন।
দেওবন্দে প্রায় দেড়বছর হাদীস অধ্যয়ন করেন। তিনি তার পড়ালেখা জীবনের সকল পরীক্ষায় একাধারে ১ম স্থান ধরে রাখেন। এটা তার শিক্ষাজীবনের অসাধারণ মেধার প্রমাণিত বৈশিষ্ট্য।
দারুল উলূম দেওবন্দে হাদীসের চূড়ান্ত পরীক্ষায় ১৮০ জন আলেমের মাঝে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে তিনি ১ম বিভাগে ১ম স্থান অধিকার করেন।
এসময় তার হাদীসের সর্বোচ্চ উস্তাদ ছিলেন, জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের সমকালীন মহামান্য সভাপতি, উপমহাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের অগ্নিপুরুষ, শাইখুল ইসলাম আল্লামা সাইয়েদ হুসাইন আহমদ মাদানী রাহি.।
১৯৫৭ সালে দারুল উলূম দেওবন্দের শায়খুল হাদিস সাইয়্যিদ হোসাইন আহমদ মাদানী রাহিমাহুল্লাহ ইন্তেকাল করেন। তার ইন্তেকালের পর দেওবন্দে শায়খুল হাদিস পদ শূন্য হয়। তখন সেই পদ পূরণে যে তিনজন ক্ষণজন্মা আলেমের নাম প্রস্তাব করা হয়েছিল আল্লামা বায়ামপুরী রাহিমাহুল্লাহ ছিলেন তাদের অন্যতম।আল্লামা বায়ামপুরী রাহিমাহুল্লাহ ১৯৪৭ সালে হজে মক্কার ইমাম সাহেবের খুতবায় ভুল ধরেন এবং সৌদি সরকারের কাছ থেকে বিশেষত্ব লাভ করেন।
স্বদেশ ফিরে ভারতীয় স্বাধীনতা আন্দোলনে তাঁরই উস্তাদ মাওলানা সায়্যিদ হোসাইন আহমদ মাদানী রাহিমাহুল্লাহ এর অনুসরণে ময়দানে আন্দোলন সংগ্রামে উজ্জ্বল স্বাক্ষর রাখেন। এসময় তাঁর উপর গ্রেফতারী পরোয়ানা জারীর প্রেক্ষিতে কিছু দিনের জন্য চলে যান ভারতের বদরপুরে।
ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের মহান নেতা মাওলানা হোসাইন আহমদ মাদানী রাহিমাহুল্লাহ ‘র আদর্শে উজ্জীবিত হয়ে তিনি জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম পূর্ব পাকিস্তানের রাজনীতিতে অসাধারণ ভূমিকা রাখেন। তিনবার জাতীয় নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে
১৯৬২ সালে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে পাকিস্তানের পার্লামেন্ট নির্বাচনে চেয়ার প্রতীকে নির্বাচন করে বিপুল ভোটে মেম্বার অব ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি হিসেবে নির্বাচিত হন।
অবশেষে আল্লামা মুশাহিদ বায়মপুরি রাহি.১৩৯০ হিজরির জিলহজ মাসের ০৯ তারিখ, ৭ ফেব্রুয়ারি, ১৯৭১ সালে ইন্তকাল হন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2020 Izharehaq.com
Theme Customized BY Md Maruf Zakir