1. abutalha6256@gmail.com : abdul kadir : abdul kadir
  2. abutalha625616@gmail.com : abu talha : abu talha
  3. asadkanaighat@gmail.com : Asad Ahmed : Asad Ahmed
  4. izharehaq24@gmail.com : mzakir :
সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ০৮:২৩ অপরাহ্ন

তালি যুক্ত কাপড় পরেই খলিফাতুল মুমিনীনের বায়তুল মুকাদ্দাস বিজয়

মোহাম্মদ শরীফ
  • প্রকাশটাইম: বৃহস্পতিবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২১

খলীফাতুল মুসলিমীন হযরত উমর (রা.) যখন মুসলমানদের প্রাণকেন্দ্র বাইতুল মুকাদ্দাস জয় করার জন্য বের হচ্ছিলেন, সে সময় তার পরিহিত জামায় সতেরোটি তালি লাগানো ছিল। আর কেনই বা এমন কাপড় পরবেন না,রাসুলে আরাবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর জামা মুবারকেও তো অসংখ্য তালি লাগানো ছিল। এবং সে তালি গুলোর অধিকাংশ ছিল চামড়ার। প্রিয়নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে একবার জিবরীল আমীন এসে জিজ্ঞেস করলেন, হে আল্লাহর রাসূল!




আপনি যদি চান তাহলে আপনার জন্য মদিনার এই ওহুদ পাহাড়কে স্বর্ণ বানিয়ে দেওয়া হবে। প্রিয় নবীজিমুচকি হেসে জবাব দিলেন, নাহ্ তার প্রয়োজন নেই। বরং আমি এভাবে জীবনযাপন করতে ভালোবাসি যে,একবেলা খাব আর দু’বেলা উপবাস থাকবো। প্রিয় নবীজি (সা.) দুনিয়ার ধন দৌলতকে প্রত্যাখ্যান করে ক্ষুধার্ত থাকাকে বেছে নিয়েছিলেন। নবীজি বলতেন ক্ষুধার্ত থাকা হচ্ছে আমার উম্মতের ফখর!





সাহাবাগণ রাসূলের জীবনের প্রতিটা কাজকে হুবহু অনুসরণ করেছেন। খলিফা ওমর রাযিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু যখন তালি যুক্ত জামা পরিহিত অবস্থায় রওনা হয়েছিলেন, সাহাবাদের মধ্য হতে কেহ হযরত আলী রাযিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুকে বললেন, হযরত ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহুকে বলুন অন্তত আজকের দিনে তালি যুক্ত কাপড় খুলে একটু ভালো কাপড় পরিধান করার জন্য। কারণ তিনি ইহুদী-খৃষ্টানদের দেশে যাচ্ছেন। তারা হয়তো খলীফাতুল মুসলিমীনকে দেখে বিরূপ মন্তব্য করতে পারে। তারা এই বলে তিরস্কার করতে পারে যে ,মুসলমানগন তাদের খলিফার জন্য একজোড়া ভালো কাপড়ের ব্যবস্থাও করতে পারে নি ।





আপনি খলিফা ওমর (রা.)-কে বুঝিয়ে বলুন। সাহাবাদের পীড়াপীড়িতে হযরত আলী (রা.) কথাটি বলার জন্য হযরত ওমরের কাছে গেলেন, কিন্তু এমন কথা বলার সাহস পেলেন না। কারণ ওমর (রা.) এমনিতেই গরম! তারপরও এমন স্পর্শ কাতর বিষয়ে মুখটাই বা খুলবেন কীভাবে। অনেক চেষ্টা করলেন কিন্তু কোনভাবেই বলতে পারলেন না। ফিরে এলেন সাহাবাদের কাছে । নিজের অপারগতা প্রকাশ করলেন। হযরত আলী বললেন আমি যখন বলার জন্য খলিফা এর কাছে গিয়েছি তখন কথা বলার শক্তি হারিয়ে ফেলেছি। এবার সাহাবাগণ পরামর্শ করলেন, তাহলে একথা খলিফার কাছে কে বলতে পারে? সকলেই খেয়াল পেশ করল, আম্মাজান আয়েশা রাযিয়াল্লাহু আনহা এবং হাফসা রাযিয়াল্লাহু আনহা বলতে পারবেন। সকলে মিলে হযরত হাফসা রাযিয়াল্লাহু আনহার কাছে গেলেন। হযরত হাফসা রাযিয়াল্লাহু আনহা বললেন, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম এর স্ত্রী এবং খলিফা ওমরের মেয়ে। কিন্তু আমার পিতাকে একথা বলার সাহস আমার নেই। আমি একথা বলতে পারব না। হযরত আয়েশা (রা.) বলতে পারবেন।


সাহাবায়ে কেরাম রাযিয়াল্লাহু আনহুম হযরত আয়েশার কাছে দরখাস্ত করলেন। অতঃপর তিনি হযরত উমর রাযিআল্লাহু আনহু কে ডেকে পাঠালেন। হযরত ওমর রাযিয়াল্লাহু আনহু আম্মাজান আয়েশা রা এর পয়গাম পাওয়ার সাথে সাথেই উপস্থিত হলেন। ভারত উপমহাদেশের বিখ্যাত হাদীস বিশারদ শাহ ওয়ালিউল্লাহ মুহাদ্দিসে দেহলবী রহমতুল্লাহি আলাইহি একটি গ্রন্থে লিখেছেন যে, হযরত ওমর রাযিয়াল্লাহু আনহু আম্মাজান আয়েশা (রা.)-এর সামনে দোজানু হয়ে বসে পড়েন। আম্মাজান বললেন, আমিরুল মুমিনিন! আপনি যেহেতু খ্রিস্টানদের রাজ্যে যাচ্ছেন। এই জন্য আপাতত এই তালি যুক্ত পোশাক পরিবর্তন করে অন্য একটি ভালো জামা পরিধান করুন।




আম্মাজান আয়েশা রাযিয়াল্লাহু আনহার কথা শেষ হতে না হতেই খলিফাতুল মুমিনীন কেঁদে ফেললেন। আম্মাজান রাযিয়াল্লাহু আনহাকে বললেন, আম্মা আপনি কি আমাকে রাসুলে আরাবি সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম এর থেকে দূরে সরিয়ে দিতে চাচ্ছেন? আপনার কি রাসূলের সাথে কাটানো সেই দিনগুলোর কথা মনে নেই যে, দিনের-পর-দিন নবীজি (সা.) উপবাস থেকেছেন, তিন দিন পর্যন্ত নবীজির চুলায় আগুন জ্বলেনি। আম্মাজান আপনার কি সেই দিনগুলোর কথা মনে নেই যে, নবীজি (সা.) তালি যুক্ত কাপড় পরিধান করেছেন। আম্মাজান ! ওমর এই ছেঁড়া-ফাঁড়া তালি যুক্ত পোশাক পরে যে স্বাদ অনুভব করে তা বুঝানো সম্ভব নয়। ওমর অন্যকিছুতে আর এমন স্বাদ অনুভব করে না। সিরাতের কিতাব সমূহে লিপিবদ্ধ রয়েছে যে, খলিফা হযরত উমর রাযিআল্লাহু আনহু যখন রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম এর অসহায়ত্বের কথা আলোচনা করতে ছিলেন, আম্মাজান আয়েশা এবং আম্মাজান হাফসা (রা.) দু’জনেই অঝোরে কাঁদতে ছিলেন।



অতঃপর খলীফাতুল মুসলিমীন হযরত ওমর রাযিয়াল্লাহু আনহু তালি যুক্ত কাপড় পরিধান করেই মুসলমানদের প্রাণকেন্দ্র বাইতুল মুকাদ্দাস বিজয় করার জন্য বের হন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
copyright 2020:
Theme Customized BY MD MARUF ZAKIR