1. abutalha6256@gmail.com : abdul kadir : abdul kadir
  2. abutalha625616@gmail.com : abu talha : abu talha
  3. asadkanaighat@gmail.com : Asad Ahmed : Asad Ahmed
  4. izharehaq24@gmail.com : mzakir :
বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ০৯:৪৬ অপরাহ্ন

দুই কারণে গজবের মুখোমুখি আলেমসমাজ : প্রকাশ্যে তাওবা জরুরি

সৈয়দ মবনু
  • প্রকাশটাইম: শনিবার, ৮ মে, ২০২১

আল্লাহর গজব বিশ্বাসীদের জন্য রহমত, বরকত এবং মাগফিরাতের কারণ হয়ে যায় যদি তারা মুত্তাকি (পরহেজগার) হয়, আর তা এজন্য হয় যে, সে এ থেকে শিক্ষা অর্জন করে, হিদায়তের নসিহত লাভ করে, আল্লাহর কাছে নিজের ভুলের জন্য নত হয়ে তাওবাহ করে, চোখের জলের বিনিময় আল্লাহর কাছে নিজকে কবুল করিয়ে নিতে সক্ষম হয়, আল্লাহ তাঁর দরজাহ বুলন্দ করেন।

আর অবিশ্বাসী এবং মুনাফিকদের জন্য তা হয় আরও ধ্বংসের কারণ, তারা তাদের অহংকারের উপর হয় আরও দৃঢ়, তাদেরকে তাদের ভুল সংশোধনের কথা বললে তারা চোখ রাঙিয়ে অহংকারের সাথে ধমক দেয়, ব্যাঙ্গ করে, গালাগালি করে, তার দল বা গণগোষ্ঠিকে লেলিয়ে দেয় নসিহতকারির দিকে। তাকাব্বুরির কারণে সে বা তারা তাওবাহ থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়। ফলে আল্লাহ তাদের উপর গজবকে আরও বৃদ্ধি করতে থাকেন।

বর্তমান বাংলাদেশের কিছু আলেমের উপর যে গজব এসেছে এর দুটি কারণ।
১. তাদের একদল নিজে নেতৃত্ব আর কর্তৃত্বের জন্য তাবিলিগের মতো মহত কাজকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে গেছেন। বিশ্ব ইসতেমার মধ্যে ফেতনা তৈরি করেছেন, তাবলিগের বিশ্ব আমির শায়খুলহাদিস আল্লামা সাদ কান্ধালভীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যাচার করেছেন, মারাত্মক মারাত্মক অপবাদ দিয়েছেন, বিভিন্ন মসজিদ থেকে তাবলিগের জামায়াতকে বের করে দিয়েছেন, তাবলিগের সাথীদেরকে রক্তাক্ত করেছেন। বিপরীতে সাদ কান্ধালভী নীরব থেকেছেন, সবর করেছেন।

২. আল্লামা আহমদ শফি (র.) এর সাথে একদলের বেয়াদবি এবং জুলুম-অত্যাচার দেখার পরও ব্যাপকভাবে আলেম সমাজের নিরবতা অবলম্বন কিংবা বেয়াদবদেরকে সহযোগিতা প্রদান। শেষ পর্যন্ত মজলুম অবস্থায় হযরতের পৃথিবী ছেড়ে চলে যাওয়া। অতঃপর হযরতকে বদনামি করার জন্য মুনাফিকদের ক্রমাগত চেষ্টা আর আলেমদের লোভী অংশ তাদেরকে সহায়তা করা।

আমরা একদল এই দুই ঘটনার সময়ই বারবার বলেছি, গজব হয়ে যাবে, ধ্বংস হয়ে যাবে, ভুল সংশোধন করুন। তারা আমাদেরকে গালির ফুল বর্ষন করেছেন। আফসুস তারা যদি বুঝতেন আল্লাহর অলিদের নিরব চোখের জলের কত মূল্য? তারা যদি বুঝতেন, অলিদের আহ শব্দে কত গজব ডেকে আনতে পারে, তারা যদি গজবকে গজব হিসাবে দেখার যোগ্যতা অর্জন করতেন এবং এখনও তাওবাহ করে নিতেন। যাদের হক তারা তাদের ওয়াজে, আন্দোলনে কিংবা কর্মিদেরকে লেলিয়ে নষ্ট করেছেন যদি তাদের কাছ থেকে ক্ষমা নিতে পারতেন?

আল্লাহ আমাদের সবাইকে তাওবাহ করার তৌফিক দান করুন। যারা দোষে গজবের শিকার হয়েছেন, তাদেরকে হেদায়ত নসিব করুন, যারা অন্যায়ের সহযোগিতার জন্য দোষি এবং যারা নিরব থেকে অন্যায়কে আশ্রয় দিয়েছেন তাদেরকেও তাওবার তৌফিক দান করুন। আমাদের সবার তাওবাহ আল্লাহপাক যেন এই রামযানের মধ্যেই কবুল করে আমাদেরকে সর্বপ্রকার গজব থেকে রক্ষা করেন। আমিন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
copyright 2020:
Theme Customized BY MD MARUF ZAKIR